দোকানদার নেই, দোকান চলে বিশ্বাসের ওপরে!

0
44

দোকানে যান, জিনিস কিনুন৷ কিন্তু আপনার টাকা নেওয়ার জন্য কোনও দোকানদার সেখানে অপেক্ষা করবে না৷ মালিকের বিশ্বাস আপনি যখন জিনিস কিনেছেন, দাম দেবেনই৷ তাই সেখানে একটি পাত্রও রাখা রয়েছে৷ জিনিসের দাম অনুসারে সেই পাত্রেই দিতে হয় টাকা৷ দোকানটি বইয়ের৷ নাম বুক হিরো৷ দুবাইয়ে অবস্থিত৷ এখানে আছে প্রায় ২০ হাজার বই৷ দোকানের মালিক মন্টসেরাট মার্টিন বলেছেন, গ্রাহকদের বিশ্বাসের ওপর ভিত্তি করেই দোকান চলে৷ দোকানে তিনি কোনও কর্মচারী রাখেননি কারণ তিনি গ্রাহকদের বিশ্বাস করেন৷ তিনি নিজে দিনে একবার দোকানে যান৷ তখনই স্টক রিপ্লেস করেন ও টাকা নিয়ে আসেন৷ কিন্তু কেউ কখনও বই বা টাকা চুরি করেনি এমন প্রশ্নের জবাবে মার্টিন জানান, এতদিন ধরে দোকান চলছে, এমন ঘটনা একবারও ঘটেনি৷ চোরেরাও এদিকে নজর দেয় না৷ টাকা তো দূরের কথা একটি বইও কখনও চুরি হয়নি দোকান থেকে৷ একবার ৩০০ দিররাম (দুবাইয়ের মুদ্রা যা প্রায় ৫ হাজার ৩০০ টাকা)-এর একটি বই বিক্রি হয়েছিল৷ কিন্তু সেই টাকাও গচ্ছিত ছিল ট্রাস্ট বক্সে৷ বইপ্রেমীরাও এই দোকানটি খুব পছন্দ করে৷ হলুদ ও সবুজ চিরকুটে বইয়ের মধ্যে দাম লেখা থাকে৷ সাধারণত বইয়ের দাম ১০ থেকে ২০ দিরহামের মধ্যেই ঘোরাফেরা করে৷ ইংলিশ ও আবরিক ছাড়া ফ্রেঞ্চ, রাশিয়ান, স্প্যানিশ ও চিনা ভাষার বইও এই দোকানে পাওয়া যায়৷